শিরোনাম :
-->
English
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
ঢাকা, সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ ইং

প্রচ্ছদ » জাতীয় !!

১৪৪ ধারার খবরে উত্তেজনা

28 Sep 2013 12:13:36 PM Saturday BdST

 

টানা৩ দিনের ক্লান্তি কাটিয়ে সুন্দরবন রক্ষার দাবিতে এগিয়ে যাওয়া লংমার্চে এখন নতুন উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা কমিটির এই লংমার্চকে স্থানীয় প্রশাসন বাগেরহাটে ঢুকতে দেবে না বলে জানা গেছে। এমনকি সেখানে জারি করা হতে পারে ১৪৪ ধারা। এছাড়া ২৮ সেপ্টেম্বর বাগেরহাটে সভা এবং মিছিল নিষিদ্ধ করা হতে পারে বলে জানা গেছে। এ খবরে এখন উত্তেজনা বিরাজ করেছে লংমার্চে।

বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদপুর থেকে মাগুরা-ঝিনাইদাহ পার হয়ে লংমার্চ যশোরে পৌঁছানোর পরপরই খবর আসে বাগেরহাটে ঢুকতে দেওয়া হবে না লংমার্চ বহরকে। রামপালে ১৪৪ ধারা জারি করতে পারে স্থানীয় প্রশাসন। এ খবরে সফরের ক্লান্তি ভুলে এখন বেশ উত্তেজনাময় অবস্থা বিরাজ করছে লংমার্চ কর্মীদের মাঝে।

শুক্রবার সকালে যশোর থেকে খুলনার পথে যাত্রার সময় সরকার-বিরোধী স্লোগান দেয় কর্মীরা। চলছে টানা স্লোগান। এমনকি দেওয়া হচ্ছে ১৪৪ ধারা ভাঙার স্লোগান।

এদিকে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করা হলে ১৪৪ ধারা জারির বিষয়টি নিশ্চিত করা যায়নি। তবে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা জানায়, গত ২ দিন ধরে তারা ১৪৪ ধারা জারি করার খবর শুনে আসছেন।

অন্যদিকে ১৪৪ ধারা জারি হলে কী কর্মসূচি নেওয়া হবে কিংবা তা ভাঙা হবে কি না, এ বিষয়ে জাতীয় কমিটির পক্ষ থেকে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি।

লংমার্চের কর্মীরা জানায়, যদি রামপালে তাদের ঢুকতে দেওয়া না হয় তাহলে যেখানে বাধা দেওয়া হবে। সেখানে বসেই সভা ও কর্মসূচি ঘোষণার পাশাপাশি সুন্দরবন রক্ষার ঘোষণাও দেওয়া হবে।

জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, “পরিস্থিতি যাই হোক লংমার্চ তার লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে। আমাদের সমাবেশ রামপালের দিগরাজের নির্ধারিত স্থানেই হবে।”

রামপালে ভারতীয় কোম্পানির সাথে যৌথ উদ্যোগে নির্মাণ হতে চলছে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প। সুন্দরবন ঘেষে এই কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণ করলে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে বলে দাবি করে আসছে বিভিন্ন সংগঠন। এই প্রকল্প বাতিলের দাবিতে জাতীয় কমিটির ব্যানারে ২৪ সেপ্টেম্বর রামপাল অভিমুখে লংমার্চ যাত্রা শুরু করে হাজারো মানুষ।

এদিকে লংমার্চের যাত্রার দ্বিতীয় দিনে জ্বালানি মন্ত্রণালয় থেকে সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়। এই সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২২ অক্টোবর রামাপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হবে। এ খবর লংমার্চ বহরে পৌঁছানোর সাথে সাথে সরকার-বিরোধী নানা স্লোগানে সরব হয়ে ওঠে আন্দোলনকারীরা।

এর প্রেক্ষিতে জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব আনু মোহাম্মদ বলেন, "সরকার লংমার্চে জনসমর্থন দেখেই ভীত হয়ে এ ঘোষণা দিয়েছে।"

এই সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন

পাঠকের মন্তব্য (0)

সর্বশেষ সংবাদ

সংবাদ আর্কাইভ

নামাজের সময়সূচী

ওয়াক্ত সময় শুরু
ফজর ০৪:১৩
জোহর ১১:৫৮
আসর ১৫:২৬
মাগরিব ১৮:২৫
এশা ১৯:৪৪
সূর্যোদয় ০৫:৩২
সূর্যাস্ত ১৮:২৫
তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৮