শিরোনাম :
-->
English
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ইং

প্রচ্ছদ » জাতীয় !!

সাঙ্গুর গ্যাস উৎপাদন চিরতরে বন্ধ

07 Oct 2013 09:36:51 AM Monday BdST

 

দেশের সাগরবক্ষের একমাত্র গ্যাস ক্ষেত্র সাঙ্গুর উৎপাদন চিরতরে বন্ধ হয়ে গেছে।

গ্যাস ক্ষেত্রটির ১১নং কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়ার পর ৫ থেকে ৬ বছরের রিজার্ভ থাকার কথা জানিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ান অপারেটর স্যান্টোস। কিন্তু মাত্র ১৫ মাসের মাথায় মঙ্গলবার ভোর রাতে এ কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন চিরদিনের জন্য বন্ধ হয়ে যায়।

এই গ্যাস কূপের রিজার্ভ নিয়ে সান্তোস পেট্রোবাংলাকে অন্ধকারেই রেখেছিল বলে অভিযোগ ওঠেছে। ফলে চট্টগ্রামের গ্যাস সেক্টরের ভাগ্য বিপর্যয় শুরু হয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (কেজিডিসিএল) মহাব্যবস্থাপক শহিদ আলী জানান, সাঙ্গুতে রিজার্ভের পরিমাণ নিয়ে অপারেটর প্রতিষ্ঠান স্যান্টোসের ধারণা সঠিক ছিল না। তারা গ্যাসের রিজার্ভ নিয়ে ভুল তথ্য দিয়েছিল। কূপটি বন্ধ হওয়ার মাধ্যমে তা প্রমাণিত হয়েছে।

৩ বছর আগে বঙ্গোপসাগরে নতুন করে কূপ খননের উদ্যোগ নেয় স্যান্টোস। শুরুতে একটি কূপ খনন করার পর গ্যাসের সন্ধান মেলেনি। পরে পরিত্যক্ত কূপটির পাশে আরেকটি কূপ খনন করা হয়। ১৬ নম্বর ব্লকের অধীন এই কূপের নাম সাঙ্গু-১১। স্যান্টোসের ড্রিলিং রিগ ৪ হাজার ২০০ মিটার মাটির গভীরে পৌঁছে অবশেষে গ্যাসের সন্ধান পায়। নগরীর হোটেল পেনিনসোলায় সংবাদ সম্মেলন করে বিপুল গ্যাস রিজার্ভ থাকার কথা জানানো হয়। স্যান্টোসের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবিএ সিরাজউদ্দৌলা জানিয়েছিলেন, ওই কূপ থেকে চট্টগ্রামে প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৩০ মিলিয়ন ঘনফুট করে গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

গত বছরের জুনে এই কূপ থেকে চট্টগ্রামে শুরু হয় গ্যাস সরবরাহ। শুরুতে প্রতিদিন ৩০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হয়। কিন্তু মাস না পেরুতেই চিত্র পাল্টে যায়। গ্যাস সরবরাহ নেমে আসে ২৩ মিলিয়ন ঘনফুটে। এরই মধ্যে গ্যাস উৎপাদন কয়েক দফা বন্ধ হয়ে যায়। একপর্যায়ে গ্যাস সরবরাহ ৯ মিলিয়ন ঘনফুটে নেমে আসে।

উৎপাদন বাড়ানোর জন্য চল্লিশ কোটিরও বেশি টাকা খরচ করে নতুন করে কম্প্রেসার স্থাপন করা হয়। কিন্তু তাতে খুব বেশি কাজ হয়নি। সর্বশেষ প্রতিদিন গ্যাস উৎপাদন নেমে আসে দেড় থেকে ২ মিলিয়ন ঘনফুটে। মঙ্গলবার ভোর রাতে কূপ থেকে গ্যাস সরবরাহ একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়। পেট্রোবাংলা ও কেজিডিসিএলকে আগেই চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানানো হয়। চিঠিতে ৩০ সেপ্টেম্বর কূপটি স্থায়ীভাবে বন্ধের কথা জানানো হয়। তবে শনিবার ভোর থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকলেও পরে দিনভর সরবরাহ স্বাভাবিক ছিল। রাতে শুরু হয় গোলযোগ। সরবরাহ হঠাৎ বন্ধ হয়ে আবার শুরু হতে থাকে।

এই সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন

পাঠকের মন্তব্য (0)

সর্বশেষ সংবাদ

সংবাদ আর্কাইভ

নামাজের সময়সূচী

ওয়াক্ত সময় শুরু
ফজর ০৩:৫৮
জোহর ১২:০৬
আসর ১৫:২৮
মাগরিব ১৮:৪৯
এশা ২০:১৫
সূর্যোদয় ০৫:২৩
সূর্যাস্ত ১৮:৪৯
তারিখ ১৯ জুলাই ২০১৮